Home / Others / নভেম্বরে বাস্তবায়ন হবে ‘এক দেশ এক রেট’ ব্রডব্যান্ডে

নভেম্বরে বাস্তবায়ন হবে ‘এক দেশ এক রেট’ ব্রডব্যান্ডে

আগামী নভেম্বর এ দেশের সকল ব্রড ব্যান্ড এক দেশ এক রেট বাস্তবায়ন হবে এমন টাই জানিয়েছেন ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আই এস পি এবি এর সভাপতি আমিনুল হাকিম। এক দেশ এক রেট এবং এ নিয়ে বাস্তবায়ন সম্পরকিত তথ্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন তিনি।

এরই মধ্যে দেশের ৫০-৬০ ভাগ ইন্টারনেট সেবা দান কারী প্রতিষ্ঠান এই এক দেশ এক রেট সেবা চালু করে ফেলেছে । যে সব কম্পানি তে ৫০০ ও ৮০০ টাকা এর প্যাকেজ ছিলো না তারাও এই মাস অথবা আগামী চলতি মাস এর মাঝেই সব প্যাকেজ আপডেট করে ফেলবে এবং এই নতুন প্যাকেজ আপডেট করবে।

আবার যারা অপর দিকে আট শত টাকায় ৮ কিংবা কম বেশী দিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছিলো তারা এখন ১০ এম্বি পি এস ইন্টারনেট দেবে। মোটামুটী নভেম্বর থেকেই এই নতুন প্যাকেজ চালু হয়ে যাবে বলে সবাই আশাবাদী।

এই প্রজেক্ট বাস্তবায়ন হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠলে আমিনুল হাকিম জানিয়েছেন যে বাস্তবায়ন হবে বলেই আমরা তীব্র আশাবাদী কিছু সমস্যা ছিলো অবশ্য কিন্তু সেগুলি টেকনিক্যাল ডেভালপার দারা সলভ করানো হয়েছে । আর চালু হওয়ার পর যদি আই এস পি বা গ্রাহক কোনো নিয়ম ভংগো করেন কিংবা গ্রাহক কোনো সমস্যার সম্মুখীন হন তাহলে তারা বি টি আর সি এর কাছে অভিযোগ জানাতে পারবেন এতে করে তাতক্ষনিক ভাবে তাদের সমস্যার বিষয় টি সমাধান করা হবে বলে তিনি বলেছেন।

ইন্টারনেট সেবা দান কারী প্রতিষ্ঠান গুলি এতদিন যাবত নিজেদের ইচ্ছা মত ইন্টার নেট প্যাকেজ গুলির প্রাইস সেট করে এরপর গ্রাহক দের কাছে স্তাপন করতো এতে কএ তারা এক চেটিয়া ভাবে ব্যাবসা করে গিয়েছে গ্রাহক অনেক পড়েছে লস এ আর তারা কম স্পিড দিয়ে বেশী টাকা নিয়েছেন। তাই এক্ষেত্রে গ্রাহক সব সময় ই লস করে গিয়েছে। কিন্তু এই সুযোগ আর নেই । এখন থেকে রুলস এন্ড রেগুলেশন ফলো করে সকল প্যাকেজ সেট করতে হবে এবং সেই প্যাকেজ গুলি কে বি টী আরি সি এর থেকে অনুমোদন করিইয়ে নিতে হবে ।

সরবোপরি এখন গ্রাহক বেশী লাভবান হবেন নাকি প্রভাইডার সেটা সঠিক ভাবে বলা যাচ্ছে না ধারণা করা হচ্ছে এই পদ্ধতি তে দু পক্ষই লাভবান হবে সমান সমান। তবে তাদের ধারণা যে গ্রাহক দাম কমানোর বিসয়ে আগ্রহী কম বরং স্পিড বাড়ানো তে আগ্রহী বেশী ।

আন্তঃজেলায় ব্যান্ড উইথের ভলিউম বাড়ানোর মাধ্যমে আই এস পি প্রভাইডের খরচ কিছুটা কমানোর চেস্টাও তারা করবেন বলে জানানো হয়েছে। এবং এটা ও বলা হয়েছে যে সারভিস প্রভাইডার দের যখন ব্যবসা বাড়বে তখন খরচ টা কমে আসবে ।

পাবজি ও ফ্রি ফায়ার গেমস বন্ধ করায় ইন্টারনেট সারভিস প্রভাইডার দের কোনো ক্ষতি হয়েছে কিনা জানতে চাওয়ায় তিনি বলেছেন এ দুটী গেমস বন্ধ করা অনেক টা সাগর থেকে দুই বালতি পানি উঠিয়ে নেয়ার মত প্রভাব ফেলেছে। ব্যান্ডউইথের ব্যবহার এখনো ২৬৫০ জিবিপিএসই আছে।

নীচে কমেন্ট করে জানান এ সম্পরকে আপনার ধারণা কি এবং পরবর্তী লেখায় আপনি কোন টপিক সম্পরকে জানতে চান আজকের মত এখানেই শেস করছি ।

Check Also

বন্ধ হয়ে গেলো ইন্ডিয়ান সকল জালাময়ী সিরিয়াল

শুধু ইন্ডিয়া নয় বিদেশী সকল চ্যানেল যেগুলি অনুসঠান এর পাশাপাশি বিজ্ঞাপন প্রচার করে সেই সকল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.